বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:০৫ অপরাহ্ন

রেকর্ড ভাঙা ও পার্থক্য গড়ার কারিগর সাকিব

ক্রীড়া ডেস্ক: আইসিসির টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে আবারো অলরাউন্ডারদের তালিকার এক নম্বরে উঠে আসার পাশাপাশি আইসিসি প্লেয়ার অব দ্য মান্থ (মাস সেরা ক্রিকেটার) নির্বাচিত হওয়া সাকিব আল হাসানকে নিয়ে বিশ্ব মিডিয়ায় চলছে প্রশংসা। এবার বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসিও সাকিব বন্দনায় মেতে উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) আইসিসি তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইটে সাকিবকে নিয়ে একটি বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ‘সাকিব আল হাসান: রেকর্ড ব্রেকার, ডিফারেন্স মেকার,’ এই শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনে মি. অলরাউন্ডারের কীর্তির বর্ণনা দেয়া হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাকিব আল হাসান আধুনিক ক্রিকেটের অন্যতম সেরা ফরম্যাটে (টি-২০) সেরা অলরাউন্ডার হিসেবে নিজেকে পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করেছেন। একইসঙ্গে তিনি জুলাই মাসে প্লেয়ার অফ দ্য মান্থের মুকুট জয় করেন। সাকিবের ইতিহাস গড়া জুলাই মাসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ফরম্যাটের সবকটিতে সিরিজ জিতে নেয় বাংলাদেশ।

আইসিসির ভোটিং একাডেমির মেম্বার ও সাংবাদিক এলিজাবেথ আম্মন বলেন, মাসজুড়ে সব ফরম্যাটে তার (সাকিব) পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা ও দক্ষতার প্রদর্শনী ভিন্ন এক উচ্চতায় উঠেছে।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দলের জয়ে দারুণভাবে অবদান রেখেছিলেন এই টাইগার অলরাউন্ডার। ব্যাটিংয়ের চেয়ে বোলিংয়ে বেশি উজ্জ্বল ছিলেন সাকিব। যেখান একমাত্র টেস্টে তিনি ৫ উইকেট নেন। পাশপাশি ওয়ানডে সিরিজে ১৪৫ রান করা সাকিব বল হাতে নিয়েছেন ৮ টি উইকেটে। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দলের বিপর্যয়ের মুখে অপরাজিত ৯৬ রানের ইনিংস খেলে বাংলাদেশকে জয় এনে দিয়েছিলেন সাকিব। টি-২০ তে তিন ম্যাচে ৩৭ রানের বেশি না করলেও তার ১৬০. ৮৬ স্ট্রাইক রেট রানের গতি বাড়াতে সাহায্য করেছিল। বল হাতে মাত্র ৭ ইকোনমি রেটে নিয়েছিলেন ৩ উইকেট।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com