বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাহুবলে ৫ আওয়ামীলীগ নেতাকে হারিয়ে আলেম চেয়ারম্যান নির্বাচিত শান্তিপূর্ণ ও বিশ্বাস যোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর- এসপি আক্তার হোসেন জনগণ যাকে ভালবাসবে, দায়িত্ব দিতে চাইবে, তাকেই দেবে- জেলা প্রশাসক বাহুবলে বিয়ের আনন্দ-ফুর্তি চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবতীর মুত্যু বাহুবল উপজেলা নির্বাচন : ২০ প্রার্থীর মাঝে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ বাহুবল উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত বাহুবলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বাহুবল হাসপাতালের নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি প্রথম সভা বাহুবলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বাছাইয়ে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র অবৈধ বাহুবল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

আমার কোন আবদারের জায়গা ছিল না’

১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। বাংলাদেশের ইতিহাসে এক বেদনাবিধুর দিন। এইদিন শহীদ হন বিশিষ্ট সাংবাদিক সেলিনা পারভীন, যিনি স্বাধীনতার পক্ষে ‘শিলালিপি’ নামের একটি পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক ছিলেন। তৎকালীন দেশের খ্যাতনামা বুদ্ধিজীবীদের লেখা নিয়ে প্রকাশিত ‘শিলালিপি’ ওইসময় সকলেরই নজর কেড়েছিল। সেলিনা পারভীন তার পত্রিকার বিজ্ঞাপন থেকে আয়কৃত অর্থ দিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের ওষুধ, কাপড়চোপড় এবং হাতখরচের টাকা সরবরাহ করতেন। এসব কিছুই তাকে শত্রুদের চক্ষুশূল করে তুলেছিল। যার প্রতিদান তাকে দিতে হয়েছে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়ে। সেলিনা পারভীনকে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীর বাসা থেকে আলবদর বাহিনী ধরে নিয়ে যায় একাত্তরের ১৩ ডিসেম্বর। সেই সময় তার একমাত্র সন্তান সুমন জাহিদ সেখানে উপস্থিত ছিলেন। তখন তার বয়স ছিল মাত্র ৮ বছর। মায়ের শহীদ হওয়ার ঘটনা, মায়ের অনুপস্থিতিতে বেড়ে ওঠা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং দেশ নিয়ে নিজের ভাবনা বিষয়ে সমকাল অনলাইনের সঙ্গে কথা বলেছেন সুমন জাহিদ। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন তাসলিমা তামান্না

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com