শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০১:৪২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বৃহস্পতিবার সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা চট্টগ্রামে ছাত্রলীগের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষে নিহত ৩ কলম্বিয়াকে হারিয়ে দ্বিতীয়বার কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা বাহুবলে স্মার্ট এনআইডি কার্ড বিতরণের জন্য জনবল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাহুবলে দুই মাস ধরে নিখোঁজ রবিউলের সন্ধান চায় পরিবার যে কারণে ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকি দেয় সোহাগ ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকিদাতা গ্রেপ্তার পিএসসির প্রশ্নফাঁস: দায় স্বীকার করে ৭ জনের জবানবন্দি, ১০ জন কারাগারে দেশের সম্পদ বেচে মুজিবের মেয়ে ক্ষমতায় আসে না: প্রধানমন্ত্রী ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকি, প্রতিবাদে বাহুবলে মানববন্ধন

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা

গত ২৫ মে অনলাইন পোর্টাল একুশে জার্নাল ও টাইম টিউন পত্রিকায় “বাহুবলে কুটি মিয়া কে কুপিয়ে আহত করেছে বহু অপকর্মের হুতা জিলু মিয়ার ছেলেরা” নামে শিরোনামটি আমার দৃষ্টি গোছর হয়েছে। সংবাদে আমিসহ আমাদের পরিবারের লোকজনকে জড়িয়ে যে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। একটি কুচক্রি, স্বার্থনেষী ও দূর্নীতিবাজ মহল আমাদের উপর ঈষার্ণিত হয়ে সম্মান হানি করার লক্ষে উঠে পড়ে লেগেছে। প্রকৃত ঘটনা হল- আমার প্রতিবেশী কুটি মিয়ার সাথে ঘটনার আগের দিন একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। তাৎক্ষনিক উভয় পক্ষ মিলে বিষয়টি ঘটনাস্থলে মিমাংসা করা হয়। পরের দিন কুটি মিয়া নিজেদের মধ্যে ঘটে যাওয়া দাঙ্গার দায় আমাদের উপর চাপানোর হীন উদ্দেশ্যে সাংবাদিক ভাইয়ের মিথ্যা তথ্য দিয়ে পত্রিকায় সংবাদ পরিবেশন করানো হয়। এছাড়াও ঐ ভিত্তিহীন ঘটনাটি নিয়ে থানায় একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। কুটি মিয়া গংরা তাদের নিজের মাঝে ঘটানো দাঙ্গা একপর্যায়ে মিমাংসা করে সেই দাঙ্গার পুরো দ্বায় আমাদের উপরে চাপিয়ে দেয়ার জন্যই এহেন কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে। কুটি মিয়া পূর্বেও অনেক ঘটনা ঘটিয়ে নিরীহ মানুষকে হয়রানি করেছে। পূর্বেও কুটি মিয়া তার চাচাতো ভাই আব্দুল মনাফকে কুপিয়ে আহত করেছিল। সেই ঘটনার দায়ও অন্যদের উপরে চাপানোর ব্যর্থ চেষ্টা করেছে। কুটি মিয়া ইতিমধ্যেই গ্রামের একজন দাঙ্গাবাজ এবং দুস্কৃতিকারী হিসেবে কুখ্যাতি অর্জন করেছে। সে তার ভাই সাত্তার মিয়াসহ ভাতিজা নূরুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম ও শামছুল ইসলামদের সহায়তায় গ্রামের মানুষদের সাথে দুর্ব্যবহার করে চলছে।

কবির মিয়া
পিতা- জিলু মিয়া
শংকরপুর, বাহুবল, হবিগঞ্জ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com