শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০২:২৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাহুবলে ভূমি সেবা সপ্তাহের উদ্বোধন বাহুবলে জাতীয় পুষ্টি সেবা কার্যক্রমের আওতায় কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফয়জাবাদ হাই স্কুলের সভাপতি সামিউল ইসলাম ঘূর্ণিঝড় রেমাল: ১৯ উপজেলার নির্বাচন স্থগিত বাহুবল উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাদ, সুন্দর ও দাঙ্গামুক্তভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে বাসার ছাদে আম পাড়তে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শিশুর মৃত্যু রেমাল পরিণত প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে, মহাবিপদ সংকেত বাহুবলে ৫ আওয়ামীলীগ নেতাকে হারিয়ে আলেম চেয়ারম্যান নির্বাচিত শান্তিপূর্ণ ও বিশ্বাস যোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর- এসপি আক্তার হোসেন জনগণ যাকে ভালবাসবে, দায়িত্ব দিতে চাইবে, তাকেই দেবে- জেলা প্রশাসক

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা

গত ২৫ মে অনলাইন পোর্টাল একুশে জার্নাল ও টাইম টিউন পত্রিকায় “বাহুবলে কুটি মিয়া কে কুপিয়ে আহত করেছে বহু অপকর্মের হুতা জিলু মিয়ার ছেলেরা” নামে শিরোনামটি আমার দৃষ্টি গোছর হয়েছে। সংবাদে আমিসহ আমাদের পরিবারের লোকজনকে জড়িয়ে যে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। একটি কুচক্রি, স্বার্থনেষী ও দূর্নীতিবাজ মহল আমাদের উপর ঈষার্ণিত হয়ে সম্মান হানি করার লক্ষে উঠে পড়ে লেগেছে। প্রকৃত ঘটনা হল- আমার প্রতিবেশী কুটি মিয়ার সাথে ঘটনার আগের দিন একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। তাৎক্ষনিক উভয় পক্ষ মিলে বিষয়টি ঘটনাস্থলে মিমাংসা করা হয়। পরের দিন কুটি মিয়া নিজেদের মধ্যে ঘটে যাওয়া দাঙ্গার দায় আমাদের উপর চাপানোর হীন উদ্দেশ্যে সাংবাদিক ভাইয়ের মিথ্যা তথ্য দিয়ে পত্রিকায় সংবাদ পরিবেশন করানো হয়। এছাড়াও ঐ ভিত্তিহীন ঘটনাটি নিয়ে থানায় একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। কুটি মিয়া গংরা তাদের নিজের মাঝে ঘটানো দাঙ্গা একপর্যায়ে মিমাংসা করে সেই দাঙ্গার পুরো দ্বায় আমাদের উপরে চাপিয়ে দেয়ার জন্যই এহেন কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে। কুটি মিয়া পূর্বেও অনেক ঘটনা ঘটিয়ে নিরীহ মানুষকে হয়রানি করেছে। পূর্বেও কুটি মিয়া তার চাচাতো ভাই আব্দুল মনাফকে কুপিয়ে আহত করেছিল। সেই ঘটনার দায়ও অন্যদের উপরে চাপানোর ব্যর্থ চেষ্টা করেছে। কুটি মিয়া ইতিমধ্যেই গ্রামের একজন দাঙ্গাবাজ এবং দুস্কৃতিকারী হিসেবে কুখ্যাতি অর্জন করেছে। সে তার ভাই সাত্তার মিয়াসহ ভাতিজা নূরুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম ও শামছুল ইসলামদের সহায়তায় গ্রামের মানুষদের সাথে দুর্ব্যবহার করে চলছে।

কবির মিয়া
পিতা- জিলু মিয়া
শংকরপুর, বাহুবল, হবিগঞ্জ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com