সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন

মিয়ানমারে ‘জনগণের প্রতিরোধ যুদ্ধ’ ঘোষণা ছায়া সরকারের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারে সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে জনগণের প্রতিরোধ যুদ্ধ ঘোষণা করেছে জান্তা বিরোধীদের নিয়ে গঠিত ছায়া সরকার। ছায়া সরকারের ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট দুয়া লাশি লা মঙ্গলবার এই ঘোষণা দেন।

এছাড়া জান্তা সরকারকে চাপ দিতে নতুন পরিকল্পনাও তুলে ধরেছেন দুয়া লাশি। এসময় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে তার সরকার। খবর রয়টার্সের

বক্তৃতায় ছায় সরকার প্রধান বলেন, বেসামরিকদের নিয়ে গঠিত সশস্ত্র বাহিনী (মিলিশিয়া) ও স্থানীয় জাতিগোষ্ঠীগুলোর বাহিনী তাদের তৎপরতার মাধ্যমে জান্তা সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করবে। এর পাশাপাশি আমলাদের সরকারি পদগুলো ছেড়ে দেওয়ার জন্য আহ্বান জানানো হবে।

তিনি বলেন, ‘জনগণের জীবন ও সম্পত্তি রক্ষার দায়িত্ব নিয়ে জাতীয় ঐক্য সরকার সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে জনগণের প্রতিরোধমূলক যুদ্ধ শুরু করেছে। যেহেতু এটি একটি জনবিপ্লব, তাই সমগ্র মিয়ানমারের সকল নাগরিক দেশের প্রতিটি প্রান্তে মিন অং হ্লাইং এর নেতৃত্বাধীন সামরিক সন্ত্রাসী শাসনের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করছে।’

গত ফেব্রুয়ারিতে নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী। ক্ষমতাসীন দল এনএলডিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের বন্দী করা হয়। তারপরই জান্তার হাত থেকে আত্মগোপনকারী নেতারা জাতীয় ঐক্য সরকার গঠন করেন।

সামরিক সরকারকে চাপে ফেলতে বিরোধিরা যখন নতুন কৌশল ঘোষণা করেছে তার ঠিক আগেই আসিয়ানের অস্ত্রবিরতির প্রস্তাবে রাজি হয়েছে সামরিক জান্তা। দেশটিতে মানবিক ত্রাণ বিতরণ নিশ্চিত করতে অস্ত্রবিরতির ডাক দেওয়া হয়েছিল আসিয়ানের পক্ষ থেকে। চলতি বছরের শেষ নাগাদ অস্ত্রবিরতি বাস্তবায়ন হতে পারে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com