বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৫:২৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাহুবলে ৫ আওয়ামীলীগ নেতাকে হারিয়ে আলেম চেয়ারম্যান নির্বাচিত শান্তিপূর্ণ ও বিশ্বাস যোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর- এসপি আক্তার হোসেন জনগণ যাকে ভালবাসবে, দায়িত্ব দিতে চাইবে, তাকেই দেবে- জেলা প্রশাসক বাহুবলে বিয়ের আনন্দ-ফুর্তি চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবতীর মুত্যু বাহুবল উপজেলা নির্বাচন : ২০ প্রার্থীর মাঝে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ বাহুবল উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত বাহুবলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বাহুবল হাসপাতালের নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি প্রথম সভা বাহুবলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বাছাইয়ে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র অবৈধ বাহুবল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

আওয়ামী লীগের ২৮১, বিএনপি ৬৯৬ প্রার্থী

ছবি: সংগৃহীত

তরফ নিউজ ডেস্ক : আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী ২৮১জন, বিএপির ৬৯৬ জন, জাতীয় পার্টির ২৩৩ জন, অন্যান্য রাজনৈতিক দল ১৩৫৭ জন, স্বতন্ত্র ৪৯৮ মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

এদের মধ্য দলগুলোর প্রার্থী ২ হাজারর ৫৬৯জন। আর স্বতন্ত্র থেকে মনোনয়ন দাখিল করেছেন ৪৯৮জন। সব মিলে ৩০৬৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আ’লীগ ২৬৪ আসনে, বিএনপি ২৯৫ মনোনয়ন দাখিল করেছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ নভেম্বর) রাতে নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ প্রেসবিফ্রিং একথা জানান।

এর আগের নির্বাচনে ৩০০টি সংসদীয় আসনের প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য ৩০৫৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বলে তিনি জানান। আজ আরও ৯টি বেড়েছে। গতকাল তড়িগড়ি করে হিসাব দেয়ায় গড়িমিল হয়েছে বলে সচিব জানান।

সচিব বলেন, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিবন্ধিত ৩৯টি দলের সবগুলোই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ (নৌকা)-২৮১ জন, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি (ধানের শীষ)-৬৯৬জন, জাতীয় পার্টি-জাপা (লাঙ্গল)-২৩৩জন, জাতীয় পার্টি-জেপি (বাইসাইকেল)-১৭জন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি (কাস্তে)-৭৭জন, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ (মই)-৪৯জন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ (মশাল)-৫৩জন, গণফোরাম (উদীয়মান সূর্য)-৬১জন, বিকল্পধারা বাংলাদেশ (কুলা)-৩৭জন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (তারা)-৫১জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (হাতপাখা)-২৯৯জন, বাংলাদেশ খেলাফল আন্দোলন (বটগাছ)-২৬জন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ (গামছা) ৩৭জন, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (ছাতা)-১৫ জন।

বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল-এমএল (চাকা) ৩ জন, গণতন্ত্রী পার্টি (কবুতর)-৮ জন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (কুরেঘড়)-১৪জন, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (হাতুড়ি)-৩৩জন, জাকের পার্টি (গোলাপ ফুল)-১০৮জন, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি-বিজেপি (গরুর গাড়ি)-১১জন, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন (ফুলের মালা)-২০জন, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ (হারিকেন)-৪৯জন, ন্যাশনাল পিপলস পার্ট(আম)-৯০জন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ (খেঁজুর গাছ)-১৫জন, গণফ্রন্ট (মাছ)-১৬জন, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দল-পিডিপি (বাঘ), বাংলাদেশ ন্যাপ (গাভী)-৪জন, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (কাঁঠাল)-১৩জন, ইসলামীক ফ্রন্ট বাংলাদেশ (চেয়ার)-২৮জন, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি (হাতঘড়ি)-৫জন, ইসলামী ঐক্যজোট (মিনার)-৩২জন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিম (রিকশা)-১২জন, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট (মোমবাতি)-২১জন, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি-জাগপা (হুক্কা)-৬জন, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি (কোদাল)-৩০জন, খেলাফত মজলিশ( দেয়ালঘড়ি)-১২জন, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ-বিএমএল(হাতপাঞ্জা)-১৭জন, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট (ছড়ি)-১জন ও বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ (টেলিভিশন)-৭১ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল করেছে।

এসব মনোনয়নপত্র বাছাই শুরু হবে ২ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহার ৯ ডিসেম্বর; প্রতীক বরাদ্দ হবে ১০ ডিসেম্বর। আর ভোট ৩০ ডিসেম্বর।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com