বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৫:২২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাহুবলে ৫ আওয়ামীলীগ নেতাকে হারিয়ে আলেম চেয়ারম্যান নির্বাচিত শান্তিপূর্ণ ও বিশ্বাস যোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর- এসপি আক্তার হোসেন জনগণ যাকে ভালবাসবে, দায়িত্ব দিতে চাইবে, তাকেই দেবে- জেলা প্রশাসক বাহুবলে বিয়ের আনন্দ-ফুর্তি চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবতীর মুত্যু বাহুবল উপজেলা নির্বাচন : ২০ প্রার্থীর মাঝে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ বাহুবল উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত বাহুবলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বাহুবল হাসপাতালের নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি প্রথম সভা বাহুবলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বাছাইয়ে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র অবৈধ বাহুবল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

নির্বাচনকে ঘিরে কদর বেড়েছে মাইক ব্যবসায়ীদের

রায়হান উদ্দিন সুমন, বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) থেকে  : ডিসেম্বরের ১০ তারিখ থেকেই গ্রাম-গঞ্জে পাড়ায়, মহল্লাহ সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীদের গুণকীর্তন আর প্রচারণায় শুরু হয়েছে। মিছিল, সভা-সমাবেশের এই প্রচারণার অন্যতম অনুষঙ্গ ‘মাইক’। আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। বছরের নভেম্বর মাস থেকে ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত ওয়াজ মাহফিল, সাংস্কৃতিক উৎসব, বাৎসরিক পিকনিক, পূজা থাকায় সবমিলিয়ে দম ফেলার ফুরসত থাকেনা মাইক ব্যবসায়ীদের। তবে আসন্ন একাদশ নির্বাচনকে ঘিরে মাইক ব্যবসায় যোগ হয়েছে নতুন দিগন্ত। এলাকায় কদর বেড়েছে মাইক ব্যবসায়ীদের।

অন্য সময়ের চেয়ে নির্বাচনের মৌসুমে মাইকের চাহিদা বেশি বেড়ে যায়। তাই এই সময়টার জন্য অপেক্ষা করে মাইক ব্যবসায়ীরা । একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বানিয়াচংয়ের মাইক ব্যবসায়ীরা সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে। বানিয়াচংয়ে মাইক সার্ভিস পেশার অনেকেই নিয়ে রাখছেন আগাম এ প্রস্তুতি। প্রচার যন্ত্র কাজে ব্যবহারিত মাইক ছাড়াও প্রস্তুত রয়েছে ব্যাটারী, সাউন্ড সিস্টেমও।

এবার অন্য বছরের তুলনায় ভাল সময় কাটবে বলেই আশা করছেন মাইক সার্ভিস ব্যবসায়ীরা। আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এবার মাইকের তুমুল চাহিদা থাকবে বলে আশা করছেন তাঁরা।

বানিয়াচং হাসপাতাল রোডের আফতাব মাইক সার্ভিস এ্যান্ড সাউন্ড সিস্টেমের মালিক আলা উদ্দিন মিয়া বর্তমানে খুব ব্যস্ততার মাঝে কাজ করছেন মাইক ব্যবসাটা। এটা মুলত মৌসুমভিত্তিক বলে জানান তিনি। কলেজ রোডস্থ মাইক দোকানি রুমা মাইক ও ফাহিম মাইক সার্ভিসসহ উপজেলার প্রায় অর্ধশতাধিক মাইক ব্যবসায়ী এখন পুরোপুরি ব্যস্ত সময় কাজ করছেন।  ব্যবসায়ীরা বলেন, প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে প্রার্থীরা পুরোপুরি নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন। ফলে মাইকের চাহিদা বেড়ে গেছে। এজন্য নির্বাচন উপলক্ষ্যে কেউ কেউ দুই-চার জন সহকারীও নিয়োগ দিয়েছে। কোনো কোনো প্রার্থী আবার অগ্রিম ই বুকিং দিয়ে রেখেছেন। অন্যরাও একেবারে পিছিয়ে নেই। ব্যক্তি ভেদে অনেক প্রার্থী প্রচার-প্রচারণার কাজ চালাকে মাইক বুকিং দিয়েছেন। আর ঠিকঠাক মত সেই সার্ভিস দিতে তাদের দিনরাত কাজ চালিয়ে যেতে হচ্ছে বলেও জানান সংশ্লিষ্ট মাইক ব্যবসায়ীরা।

জানা যায়, নির্বাচনে মাইক ব্যবহারের সংখ্যায় কোন বাধ্যবাধকতা না থাকলেও দুপুর ২টার পর থেকে রাত ৮টার মধ্যেই মাইকে প্রচার সীমাবদ্ধ রাখার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে সকল প্রার্থীদের।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com