মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৪৮ অপরাহ্ন

নবীগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন

উত্তম কুমার পাল হিমেল, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকে :  নবীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বিভিন্ন অনুষ্টানমালার মধ্য দিয়ে গতকাল রবিবার জাতীয় বিজয় দিবস পাল করা হয়েছে। অনুষ্টানমালার মধ্যে ছিল সুর্যোদয়ের সাথে সাথে ৩১ বার তোপধ্বনির ও স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পন, সরকারী-আধা সরকারী ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, নবীগঞ্জ জে.কে সরকারী স্কুল মাঠে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের সমন্বয়ে কুচকাওয়াজ ও শরীর চর্চা প্রদর্শন, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা, সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে ডিজিটাল প্রযুক্তির সর্বজনীন ব্যবহার এবং মুক্তিযুদ্ধ শীর্ষক আলোচনা সভা ও সিম্পোজিয়াম, হাসপাতাল ও এতিমখানায় উন্নত খাবার পরিবেশন, মসজিদ-মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, প্রজেক্টরের মাধ্যমে উন্মুক্তস্থানে চলচিত্র প্রদর্শন, প্রীতি ব্যাটমিন্টন প্রতিযোগিতা।

রবিবার দুপুর ১২টায় নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ মিলানায়তনে মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা, সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে ডিজিটাল প্রযুক্তির সর্বজনীন ব্যবহার এবং মুক্তিযুদ্ধ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদ বিন হাসানের সভাপতিত্বে এবং পজীব কর্মকর্তা শাকিল আহমদ এবং উপজেলা শিক্ষক সমিতির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক রুবেল মিয়ার পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন নবীগঞ্জ-বাহুবল আসনের আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী শাহনেওয়াজ মিলাদ গাজী, হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট আবুল ফজল, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতাউল গনি ওসমানী, নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ইকবাল আহমদ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডে সাবেক কমান্ডার নুর উদ্দিন বীর প্রতীক, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক মোঃ আব্দুর রউফ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল, যুগ্ম সম্পাদক কাজী ওবায়দুল কাদের হেলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদ মিলু, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার পাল হিমেল, ইউপি চেয়ারম্যান আলী আহমদ মুছা, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল হাই, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক লোকমান আহমদ খান, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি শাহনুর আলম ছানু।

বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসু মিয়া, রফিক মিয়া, জালাল উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান রতœদীপ দাশ রাজু, নিজামুল হক চৌধুরী প্রমুখ। অনুষ্টানে উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, শিক্ষক শিক্ষিকা, কর্মচারী, মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের লোকজনসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মৌলানা মাহবুবুর রহমান, গীতা পাঠ করেন নবীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক উত্তম কুমার পাল হিমেল।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডবোকেট আলমগীর চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এবং মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগ আর দীর্ঘ ৯ মাস যুদ্ধের ফলে এদেশে আজ বিশ্বের দরবারে স্বাধীন বাংলাদেশ হিসাবে মাথা উচঁ করে দাড়িয়েছে। এদেশকে মেধাশূন্য করার  জন্য ১৯৭১ সালের ১৪ই ডিসেম্বর  পাকিস্তানী চক্র জাতীয় ৪ নেতাসহ সকল বুদ্ধীজীবিদেরকে হত্যা করেছিল। বিএনপি জামাত চক্র এদেশে রাজাকারদের গাড়ীতে পতাকা তুলে দিয়েছিল। তাই এদেশকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা এবং উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে পুনরায় মুক্তিযোদ্ধের শক্তি বর্তমান সরকারকে ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করে ক্ষমতায় আনতে হবে। তিনি আরো বলেন ১৯৭১ সালের ৪ঠা ডিসেম্বর নবীগঞ্জ থানা সংলগ্ন স্থানে পাকিস্তানী বাহিনীর সাথে সম্মুখযুদ্ধে শহীদ  ধ্র“বজ্যোতির স্মৃতিসৌধ নির্মান এবং নবীগঞ্জ জে,কে স্কুল পয়েন্ট চৌরাস্তা মোড়কে মুক্তিযোদ্ধা চত্বর নির্মান কাজ আগামী বছরের স্বাধীনতা দিবসের পূর্বেই করা হবে বলে ঘোষনা দেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com