রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১১:০৬ অপরাহ্ন

সিলেটে প্রধানমন্ত্রীর সান্নিধ্য পাচ্ছেন ১৭ সৌভাগ্যবান প্রার্থী

তরফ নিউজ ডেস্ক: দেশের উত্তরপূর্ব কোণ, পূণ্যভূমিতে সিলেট থেকে নৌকা প্রতীকের জয়ধ্বনি তুলতে আসছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ (২২ ডিসেম্বর) দুপুরে সিলেট সরকারি আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে বক্তব্য রাখবেন তিনি। সাধারণ মানুষকে দেশের উন্নয়নের সারথি হতে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের প্রতীক নৌকায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানাবেন তিনি।

এদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সান্নিধ্য পাবেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত ১৭ জন প্রার্থী। জনতার কাছে তাদের পরিচয় করিয়ে দেবেন তিনি। নৌকায় ভোট চাইবেন তাদের পক্ষে। এজন্য উল্লসিত প্রার্থী ও সমর্থকরাও। এতে ভোটের মাঠে প্রার্থীদের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা।

আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেটে প্রথম বারের মতো বিশাল জনসমুদ্রে বক্তব্য রাখবেন শেখ হাসিনা।

এদিন সকালে সিলেটে পৌঁছে হজরত শাহজালাল (র.), শাহপরান (র.) ও গাজি বুরহান উদ্দিন (র.) মাজার জিয়ারত শেষে বিকেল ৩টায় নগরের আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রাখবেন শেখ হাসিনা।

তার আগমনকে ঘিরে সিলেটে নৌকার পালে হাওয়া লাগবে এমন আশাই নেতাকর্মী ও সমর্থকদের। তাদের আশা, আর জনসভাকে সফল করতে সিলেট সিটি করপোরেশনের সব ওয়ার্ড, উপজেলা এবং সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও হবীগঞ্জ থেকে লাখো নেতাকর্মীর সমাগম ঘটবে জনসভায়।

উপস্থিত থাকবেন ১৭টি আসনের সংসদ সদস্য প্রার্থী, তাদের সর্মথক ছাড়াও থাকবেন জাতীয় পার্টিকে দেওয়া সিলেট-২ ও সুনামগঞ্জ-৪ আসনের প্রার্থী ও সমর্থকরা।

তবে, প্রধানমন্ত্রীর সফরে প্রচারণার ক্ষেত্রে এবার এসেছে ভিন্নতা। নেই কোনো তোরণ, বিলবোর্ড বা ফেস্টুন। নেই বিশাল মঞ্চও। রয়েছে চারশ’ বর্গফুটের একটি মঞ্চ। মূলত নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে জনসভার আয়োজন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলের নেতারা।

প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে মঞ্চে ডাক পাবেন বৃহত্তর সিলেট বিভাগের ১৯টি আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগের ১৭ জন প্রার্থী। যা তাদের জন্য সৌভাগ্যের ব্যাপার।

সৌভাগ্যবান ১৭ প্রার্থী হলেন- মর্যদাপূর্ণ সিলেট-১ আসনের (সদর-সিটি করপোরেশন) মহাজোট প্রার্থী ড. এ কে মোমেন, সিলেট-৩ (দক্ষিণ সুরমা-ফেঞ্চুগঞ্জ-বালাগঞ্জ) আসনের মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েস, সিলেট-৪ (কোম্পানীগঞ্জ, জৈন্তাপুর-গোয়াইনঘাট) আসনের ইমরান আহমদ, সিলেট-৫ (জকিগঞ্জ-কানাইঘাট) আসনের প্রার্থী হাফিজ আহমদ মজুমদার ও সিলেট-৬ (গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজার) আসনের প্রার্থী ও শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ, সুনামগঞ্জ-১ আসনের ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, সুনামগঞ্জ-২ আসনে জয়া সেনগুপ্ত, সুনামগঞ্জ-৩ আসনের এম এ মান্নান, সুনামগঞ্জ-৫ আসনের মুহিবুর রহমান মানিক, মৌলভীবাজার জেলার ৪টি আসনের মধ্যে মৌলভীবাজার-১ আসনের শাহাব উদ্দিন, মৌলভীবাজার-২ আসনের এম এম শাহীন, মৌলভীবাজার-৩ আসনের নেছার আহমদ ও মৌলভীবাজার-৪ আসনের প্রার্থী উপাধ্যক্ষ ড. মো. আবদুস শহীদ, হবিগঞ্জের ৪টি আসনের মধ্যে হবিগঞ্জ-১ আসনের শাহ নেওয়াজ মিলাদ গাজী, হবিগঞ্জ-২ আসনের মো. আবদুল মজিদ খান, হবিগঞ্জ-৩ আসনের মো. আবু জাহির এবং হবিগঞ্জ-৪ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. মাহবুব আলী। মহাজোটের অপর দুই প্রার্থী হলেন- সিলেট-২ আসনের মহাজোট প্রার্থী জাতীয় পার্টির ইয়াহহিয়া চৌধুরী ও সুনামগঞ্জ-৪ আসনের মহাজোট প্রার্থী জাতীয় পার্টির পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, প্রধানমন্ত্রী সিলেটে আওয়ামী লীগের ১৭ সংসদ সদস্য প্রার্থীকে জনসভা মঞ্চে পরিচয় করিয়ে দেবেন।

তিনি বলেন, অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করাই হলো আমাদের বড় চ্যালেঞ্জ। নৌকার বিজয় তরান্বিত করা ছাড়া আমাদের ব্যক্তিগত কোনো চাওয়া-পাওয়া নেই।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com