বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৫:১৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাহুবলে ৫ আওয়ামীলীগ নেতাকে হারিয়ে আলেম চেয়ারম্যান নির্বাচিত শান্তিপূর্ণ ও বিশ্বাস যোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর- এসপি আক্তার হোসেন জনগণ যাকে ভালবাসবে, দায়িত্ব দিতে চাইবে, তাকেই দেবে- জেলা প্রশাসক বাহুবলে বিয়ের আনন্দ-ফুর্তি চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবতীর মুত্যু বাহুবল উপজেলা নির্বাচন : ২০ প্রার্থীর মাঝে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ বাহুবল উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত বাহুবলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বাহুবল হাসপাতালের নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি প্রথম সভা বাহুবলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বাছাইয়ে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র অবৈধ বাহুবল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

পাঠ্যবই চুরি করে বেচে দেওয়ার চেষ্টা, অভিযুক্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে শাস্তির সুপারিশ

স্কুলের ষ্টোর রুমে জমিয়ে রাখা নতুন বই

নিজস্ব প্রতিবেদক: হবিগঞ্জের বাহুবলের স্কুলে নতুন পাঠ্যবই চুরি করে বেচে দেওয়ার চেষ্টা করেছেন দুই শিক্ষক। অভিযুক্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে শাস্তির সুপারিশ করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জসীম উদ্দিন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বড়ইউড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

জানা যায়, ১লা জানুয়ারী বই উৎসবের মাধ্যমে সারাদেশে শিশু শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিয়েছে সরকার। কিন্তু উপজেলার বড়ইউড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মহসিন মিয়া ছুটিতে থাকা অবস্থায় দায়িত্বে থাকা সহধর্মিনী ফাতেমা বেগমের মাধ্যমে নতুন বই বিক্রির উদ্যেশে স্টোর রুমে লুকিয়ে রেখে ২০১৫-১৭ সালের পুরাতন বই সংগ্রহ করে দেড়শত শিশুদের হাতে তুলে দেন। একমাত্র দ্বিতীয় শ্রেণির পুরাতন বই সংগ্রহ করতে না পেরে সেই শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ করা হয়।  সারাদেশে নতুন বই আর এখানকার শিশুদের হাতে পুুুুরাতন বই দেখে অভিভাবকদের মাঝে বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।

বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জসীম উদ্দিন জানতে পেরে বুধবার সকালে সরেজমিনে স্কুলে গিয়ে তদন্তে নামেন। তদন্তে সত্যতা পেয়ে তাৎক্ষণিক স্টোর রুমে থাকা নতুন বইগুলো জব্ধ করে প্রধান শিক্ষক মো. মহসিন মিয়া ও তার স্ত্রী সহকারি শিক্ষিকা ফাতেমা বেগম কে উপজেলা পরিষদে নিয়ে আসেন।

পুরাতন বই হাতে এক শিক্ষার্থী

পরে ইউএনও মো. জসীম উদ্দিন কার্যালয়ে বসে বিষয়টি নিয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ও জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে নিয়ে বসে আলোচনা করে বিভাগীয় কমিশনার ও সচিব বরাবরে অভিযুক্ত শিক্ষক ও শিক্ষিকার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জসীম উদ্দিন বলেন, বিষয়টি জেনে তাৎক্ষণিক তদন্ত করে সত্যতা পেয়ে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছি। বৃহস্পতিবার সহকারি কমিশনার (ভূমি) রফিকুল ইসলাম এর উপস্থিতিতে নতুন বইগুলো শিশুদের মাঝে বিতরণ করা হবে।

এদিকে বড়ইউড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শুধু বই চুরির চেষ্টা নয় আরও বহু অপকর্মের ঘটনায় স্কুলটির শিক্ষা কার্যক্রম তছনছ হয়ে পড়েছে। এসব ঘটনার নেপত্যের বিষয় জানতে অনুসন্ধানে নেমেছে তরফ নিউজ। শ্রীঘ্রই অনুসন্ধান শেষে প্রকৃত সত্য পাঠকদের সামনে তুলে ধরবে তরফ নিউজ।

 

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com