মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১০:২২ অপরাহ্ন

ওয়াসিম ‘হত্যা’: সিকৃবি কর্তৃপক্ষের মামলার প্রস্তুতি

নিজস্ব সংবাদদাতা : সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ঘোরী মো. ওয়াসিম আব্বাসকে ভাড়া নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে বাস থেকে ফেলে দিয়ে ‘ইচ্ছাকৃত’ হত্যার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে সিকৃবি কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে ঐ ঘটনার সময় নিহত ওয়াসিমের সাথে থাকা ১০ সহপাঠীকে নিয়ে মামলা করার জন্য মৌলভীবাজার সদর থানার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের দায়িত্বপ্রাপ্ত একটি টিম।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে সিকৃবির প্রফেসর ড. মৃত্যুঞ্জয় কুন্ড সিলেটভিউকে জানান, আমাদের ছাত্র ওয়াসিমকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। এটি কোন দূর্ঘটনা নয়, ইচ্ছাকৃত হত্যাকান্ড। ওয়াসিমের পরিবার শোকে মুহ্যমান, তাই তারা হয়তো কোন মামলা করতে যাচ্ছে না। কিন্তু আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দাবীর মুখে ওয়াসিমের হত্যার বিচার দাবীতে আমরা হত্যা মামলা করতে প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

তিনি আরো জানান, ঘটনার সময় প্রত্যক্ষদর্শী দশ ছাত্রকে নিয়ে আমরা মৌলভীবাজার সদর থানার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছি। যেহেতু এটা পরিষ্কারভাবে একটি হত্যাকান্ড, সেহেতু আমরা হত্যা মামলা দায়ের করবো।

এদিকে, ওয়াসিম আব্বাসকে বাসচাপা দিয়ে ‘হত্যার’ প্রতিবাদে আজ সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করেছেন শিক্ষার্থীরা। রবিবার সিকৃবির শিক্ষার্থীরা ওয়াসিম হত্যার দাবীতে নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। পরে পাঁচদফা দাবি জানিয়ে তিনদিনের কর্মসূচী ঘোষণা করে অবরোধ তুলে নেন তারা। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা তিনিদিনের কর্মসূচীতে পাঁচদফা দাবি ঘোষণা করেন। দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- অভিযুক্ত চালক ও হেলপারের ফাঁসি দ্রুত কার্যকর করা, উদার পরিবহরেন রোড পারমিট ও লাইসেন্স বাতিল করা, লাইসেন্স ও ফিটনেসবিহীন গাড়ি মহাসড়কে চলতে না দেয়া, অদক্ষ চালক দিয়ে গাড়ি না চালানো এবং সড়কে শিক্ষার্থীসহ সকল যাত্রীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। তাছাড়া শিক্ষার্থীরা ২৭ মার্চ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ক্লাস বর্জন ও পরীক্ষা স্থগিতের দাবী জানিয়েছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সিকৃবি কর্তৃপক্ষ ছাত্রদের আন্দোলন মেনে নিয়ে সকল ক্লাস বর্জন এবং পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা দিয়েছে। এ বিষয়ে সিকৃবি বায়োটেকনোলজি ও জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের সহকারী অধ্যাপক শরীফুল ইসলাম জানান, আমাদের ছাত্র ওয়াসিম হত্যার প্রতিবাদে আমাদের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে আমরা আগামী ২৭ তারিখ পর্যন্ত সকল ক্লাস ও পরীক্ষা স্থগিত করেছি। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে আইনী পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। আমরা চাই আমাদের ছাত্র ওয়াসিম হত্যার বিচার হোক।

প্রসঙ্গত, শনিবার সন্ধ্যার দিকে সিকৃবি শিক্ষার্থী ওয়াসিম আব্বাসকে উদার পরিবহনের একটি বাস থেকে ঢাকা-সিলেট রোডের শেরপর এলাকায় ভাড়া নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বাসের হেল্পার ফেলে দেয়। ঘটনাস্থলেই বাসের চাকার নিচে পৃষ্ঠ হয়ে ওয়াসিমের মৃত্যু হয়।পরবর্তীতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ড্রাইভার এবং হেল্পারকে আটক করে। এ ঘটনায় হাইওয়ে পুলিশ বাদী হয়ে একটি দূর্ঘটনার মামলা করেছে বলে জানা গেছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com