মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন

মাধবপুরে ছাত্রীকে পিটিয়ে আহত করা শিক্ষক বহিষ্কার

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা : মাধবপুর উপজেলার শাহজীবাজার বিদূৎ উন্নয়ন বোর্ড উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে পিটিয়ে আহত করেছেন ভারপ্রাপ্ত সহকারী প্রধান শিক্ষক। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই ছাত্রীকে সিলেট ওসমানী মেডিকল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

আহত স্কুলছাত্রী সাবিকুন নাহার মিম উপজেলার কালিকাপুর গ্রামের মাহবুব তালুকদারের মেয়ে। এ ঘটনায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হাবিবুর রহমানকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। শিক্ষকের উপর্যুপরী মারপিটে আরও তিন ছাত্রী আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

মিমের চাচা এডভোকেট সাজিদুর রহমান সজল জানান, দুপুরে টিফিন বিরতিতে  শ্রেণি কক্ষ থেকে বেরিয়ে যায় মীম এবং তার সহপাঠিরা। নির্দিষ্ট সময়ের ৪ মিনিট পর ক্লাসে ফেরায় তাদের ওপর চড়াও হন সহকারী শিক্ষক হাবিবুর রহমান।

একপর্যায়ে তিনি বেত ও ডাস্টার দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করতে থাকলে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে মীম। পরে সহপাঠি ও অভিভাবকরা তাকে হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে সিলেটে পাঠান।

হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে দায়িত্বরত মেডিকেল অফিসার ডা. কামরুল ইসলাম জানান, মেয়েটির মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত  পেয়েছে। একাধিকবার বমিও করেছে সে। মস্তিস্কে রক্তক্ষরণের আশঙ্কা থাকায় তাকে সিলেটে রেফার করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সহকারী শিক্ষক হাবিবুর রহমানের সঙ্গে মোবাইল ফোনে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

প্রধান শিক্ষক মো. আবুল হোসেন সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শাসন করতে গিয়ে একটু বেশি শাসন করে ফেলেছেন। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে এম্বুলেন্স দিয়ে মিমকে সিলেট সিটি স্ক্যান করানোর জন্য পাঠানো হয়। এ ঘটনায় ভারপ্রাপ্ত সহকারী প্রধান শিক্ষককে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্তে ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি করা হয়েছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com