বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৪:২৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাহুবলে ৫ আওয়ামীলীগ নেতাকে হারিয়ে আলেম চেয়ারম্যান নির্বাচিত শান্তিপূর্ণ ও বিশ্বাস যোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর- এসপি আক্তার হোসেন জনগণ যাকে ভালবাসবে, দায়িত্ব দিতে চাইবে, তাকেই দেবে- জেলা প্রশাসক বাহুবলে বিয়ের আনন্দ-ফুর্তি চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবতীর মুত্যু বাহুবল উপজেলা নির্বাচন : ২০ প্রার্থীর মাঝে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ বাহুবল উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত বাহুবলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বাহুবল হাসপাতালের নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি প্রথম সভা বাহুবলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বাছাইয়ে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র অবৈধ বাহুবল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

সাক্ষীসুরক্ষা না থাকায় অধিকাংশ ঘটনার বিচার হয় না: সারা হোসেন

মানবাধিকার কর্মী ব্যারিস্টার সারা হোসেন বলেছেন বিচারহীনতার কারণেই সমাজে নারী ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনা বেড়ে চলেছে। সাক্ষ্য-প্রমাণ না রাখতেই ধর্ষণের পর হত্যা করা হচ্ছে। সাক্ষী সুরক্ষার ব্যবস্থা না থাকায় যেসব পরিবার ঘটনার শিকার হচ্ছে তারাও অনেকাংশে বিচার চাইছে না। আবার প্রভাবশালীদের টাকার খেলা, রাজনৈতিক ক্ষমতার দাপটে ধর্ষণ মামলার তদন্ত প্রক্রিয়াকেও প্রভাবিত করছে।

তিনি বলেন, অনেক সময় দেখা যায় চার্জশিটই হচ্ছে না। আবার চার্জশিট হলেও আসল অপরাধীরা বাইরে থেকে যাচ্ছে। বিচার প্রক্রিয়ার জন্য যে সাক্ষ্য-প্রমাণ লাগে তাও পাওয়া যায় না। আমাদের দেশে যেহেতু সাক্ষীদের নিরাপত্তার কোনো ব্যবস্থা নেই।

তাই দেখা যায় যে, আসামিপক্ষ থেকে সাক্ষীদের বিভিন্ন হুমকি-ধমকি দেয়া হয়। নিরাপত্তার অভাবে সাক্ষীরাও সাক্ষ্য দিতে আসে না। এ কারণে তনু হত্যাসহ অনেক মামলাই আলোর মুখ দেখে না। যখন কোনো ঘটনা ঘটে অপরাধীর মৃত্যুদ- চায় বলে পুরো সমাজ সক্রিয় হয়। আবার কিছুদিন পরে ভুলে যায়। এ দায় আমাদেরও।

সারা হোসেন আরও বলেন, আমরা যারা মানবাধিকার নিয়ে কাজ করি, আমাদের উচিত নারী ধর্ষণ ও হত্যা মামলাগুলোর প্রতিটি তারিখ অনুসরণ করা। কেন মামলাটি এগুচ্ছে না, সে কারণগুলো খুঁজে বের করতে হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com