সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০১:০৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :

লাকসামে তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষে নিহত ১ : আহত ৪

নিহত মাহবুবুল হকের ফাইল ছবি

আরিফুর রহমান স্বপন, লাকসাম (কুমিল্লা) : লাকসামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের সংঘর্ষে ১জন নিহত ও ৪ জন আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার ইফতার পূর্বে লাকসাম পূর্ব ইউনিয়নের পৈশাগী গ্রামে। এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। লাকসাম সার্কেল ও থানা পুলিশের যৌথ প্রচেষ্টায় প্রাথমিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ দিন ধরে উপজেলার পৈশাগী গ্রামের পশ্চিমপাড়ার মৃত. ইদ্রিস মিয়ার ছেলে মাহবুবুল হক (৫০) এবং মৃত. মোখলেছুর রহমানের ছেলে ইয়াকুব মিয়ার (৭০) পরিবারের মাঝে দ্বন্ধ চলে আসছিলো। পূর্ব বিরোধের জের ধরে ঘটনার দিন বিকেলে মাহবুবুল হকের ঘরের পাশ দিয়ে ইয়াকুব মিয়ার ছেলে শহিদ মিয়ার গো-মূত্র প্রবাহিত হওয়া নিয়ে উভয় পরিবারের মাঝে দ্ব›দ্ব লাগে। এক পর্যায়ে মৌখিক দ্বদ্ধ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে রূপ নেয়। ইয়াকুব মিয়া ও তার তিন ছেলে (শহিদ, অহিদ ও মহসিন) দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মাহবুবুল হকের পরিবারের সদস্যদের উপর হামলা করে। এসময় তারাও আত্মরক্ষার চেষ্টা করে। সংঘর্ষের এক পর্যায়ে হামলাকারীদের আঘাতে মাহবুবুল হক, তার চাচা সিরাজুল ইসলাম (৫৫), ভাই শেখ ফরিদ (৪০), বিলাল হোসেন (৪৫) ও তার স্ত্রী সুমি বেগম গুরুতর আহত হন।

আহতদের লাকসাম সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হলে অবস্থা আশংকা জনক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মাহবুবুল হককে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে স্থানান্তর করে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে এ ঘটনার পর রাত ৯টার দিকে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী ইয়াকুব মিয়ার বাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের চেষ্টা করলে লাকসাম সার্কেল ও থানা পুলিশ যৌথ প্রচেষ্টার মাধ্যমে প্রাথমিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে লাকসাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নজরুল ইসলাম জানান, ‘সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com