বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৪১ পূর্বাহ্ন

সবুজ সংকেত পেলেই ‘ঘোড়া বদল’ শুরু হয়ে যাবে

ছবি : ফাইল ছবি

তরফ নিউজ ডেস্ক:

বিএনপি থেকে অনেকেই আওয়ামী লীগে যোগ দিতে আগ্রহী দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, শেখ হাসিনা অনুমতি দিলেই বিএনপি ছাড়ার হিড়িক পড়ে যাবে।

বুধবার ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে কাদেরের এমন বক্তব্য আসে।

জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে দল বদলের কোনো চমক আসছে কি না এ প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, “ঘোড়া বদলের যে রাজনীতি, এটা গণতান্ত্রিক দেশগুলোতে নতুন কোনো বিষয় নয়। নতুন কোনো দৃশ্যপটও নয়।

“নির্বাচনে কে কোন দিকে অবস্থান নেবে? অলরেডি তো অনেকেই দলবদল করেছেন। আমরা কিন্তু এখনো আমাদের নেত্রীর ক্লিয়ারেন্স পাইনি। বিএনপি থেকে কত আসে দেখুন। একটু সবুজ সংকেত দিলেই সারাদেশে বিএনপি নেতাকর্মীদের যে স্রোতধারা আওয়ামী লীগ অভিমুখে যাত্রা করবে, এই যাত্রা মির্জা ফখরুল ইসলাম সাহেব বন্ধ করতে পারবে না।”

নির্বাচন সামনে রেখে দেশি-বিদেশি সব জরিপেই আওয়ামী লীগ ‘অনেক এগিয়ে’ আছে দাবি করে কাদের বলেন, “আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা আমাদের নেত্রীর চেয়ে একটু কম হলেও নেত্রী আমাদের সবচেয়ে বড় সম্পদ। তিনি এখন জনপ্রিয়তার অভ্রভেদী তুঙ্গে অবস্থান করছেন, তার ধারে কাছেও কেউ নাই।”

আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তার তথ্য দিতে গিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, “গত ৪৩ বছরে এই দেশে নেত্রীর মত ভাল মানুষ কেউ আছেন? দেশের ক্ষমতায় তিনি আবারও ফিরে আসুন, এটা জনগণের প্রত্যাশা।

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী হয়ে আওয়ামী লীগ টানা তৃতীয়বারের মত সরকার গঠন করবে- এমন আশাও প্রকাশ করেন সেতুমন্ত্রী কাদের।

তিনি বলেন, “বিজয়ের মাসে নৌকা ভাসতে ভাসতে বিজয়ের বন্দরে গিয়ে ঠেকবে, এটাই আমরা প্রত্যাশা করছি। আমাদের উন্নয়ন সহযোগীরাও কিন্তু আশা করছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই আবার ফিরে আসবেন।”

দশম সংসদ নির্বাচন বর্জন করা বিএনপি এবারও শেষ সময়ে সরে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন কি না- এই প্রশ্নে কাদের বলেন, “এই আশঙ্কা এই মুহূর্তে করতে চাই না। কারণ আমরা একটা প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচন চাই। ইলেকশনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হোক, ইলেকশনে যদি কমপিটিশন না থাকে তাহলে রেজাল্টের কোনো মজা নাই।”

নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা নিয়ে বিভিন্ন দলের অভিযোগের বিষয়ে কাদের বলেন, “তারা একটি স্বচ্ছ, গ্রহণযোগ্য ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন করতে সক্ষম হবে। আমার বিশ্বাস ভাল একটা নির্বাচন হবে। অহেতুক তারা এসব অভিযোগ করছে এবং তারা অভিযোগ করতেই থাকবে যতক্ষণ না তারা জেতার নিশ্চয়তা পায়।”

অন্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, উপ দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র : বিডিনিউজ

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com