শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৫:৩৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বৃহস্পতিবার সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা চট্টগ্রামে ছাত্রলীগের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষে নিহত ৩ কলম্বিয়াকে হারিয়ে দ্বিতীয়বার কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা বাহুবলে স্মার্ট এনআইডি কার্ড বিতরণের জন্য জনবল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাহুবলে দুই মাস ধরে নিখোঁজ রবিউলের সন্ধান চায় পরিবার যে কারণে ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকি দেয় সোহাগ ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকিদাতা গ্রেপ্তার পিএসসির প্রশ্নফাঁস: দায় স্বীকার করে ৭ জনের জবানবন্দি, ১০ জন কারাগারে দেশের সম্পদ বেচে মুজিবের মেয়ে ক্ষমতায় আসে না: প্রধানমন্ত্রী ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকি, প্রতিবাদে বাহুবলে মানববন্ধন

বাহুবলে মৌসুমি ফলের মেলা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: গ্রীষ্মকালীন দেশীয় ৫০-৬০ রকমারি ফলের সঙ্গে পরিচয় হয়েছে হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার একটি বেসরকারি শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান সানশাইন মডেল হাই স্কুলের শিক্ষার্থীরা। ওই প্রতিষ্ঠানে আয়োজিত গ্রীষ্মকালীন ফল উৎসবে শিক্ষার্থীদের ফলের সাথে পরিচিতির যোগসূত্র ঘটে আজ।
শনিবার (২৭ মে) সানশাইন মডেল হাই স্কুলের উদ্যােগে ১২ টি স্টল নিয়ে শিক্ষার্থী’রা এ ফল উৎসবের মেতে উঠে। সকাল ৯ টায় অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচালক এম শামছুদ্দিন এর উদ্বোধনী ঘোষণার মাধ্যমে এ গ্রীষ্মকালীন ফল উৎসব শুরু হয় ।

উৎসবে আম, জাম, কাঁঠাল, লিচু, কলা, পেয়ারা, কামরাঙা, জলপাই, চেরিফল, ড্রাগন ফল , পেঁপে, তাল, নারিকেল সহ ৫০-৬০ প্রজাতের দেশীয় ফল স্থান পায়।

মৌসুমি এ ফলের মেলার অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলিফ সোবহান চৌধুরী সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ মাহবুবুর রহমান, ৬ নং মিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শামীম আহমেদ, মিরপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের সভাপতি বাবু নিরঞ্জন সাহা নিরু, বাহুবল মডেল প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুল ইসলাম নুর, রশিদপুর গ্যাস ফিল্ডের ম্যানেজার ( এডমিন) গোলাম রাব্বানী মিন্টু, যুব উন্নয়ন অফিসার হোসেন শাহ, প্রভাষক আব্দুল হাই ভুইয়া, সাংবাদিক নুরুল ইসলাম মনি, করাঙ্গী নিউজ এর সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান মাসুম, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব কাজী আলফু, শামিনুর রহমান, আব্দুল হান্নান নানু, এম এ আজিজ সাগর,আবুল কাশেস, এ বি এম শামছুদ্দিন, বিকাশ চন্দ দেব, সঞ্জয় দেব,সত্যপ্রিয় দেব, সানশাইন স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা পরিবারের সদস্য জান্নাতুল ফেরদৌস প্রমুখ।

পরিচালক এম শামছুদ্দিন এর কাছে ফল উৎসব সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান, বর্তমান সময় শিক্ষার্থীরা দেশীয় ফল সম্পর্কে খুবই কম পরিচিত। তাই এই বছর মৌসুমী ফলের সাথে তাদের পরিচয় করে দিতে এ উৎসবের আয়োজন করা হয়। এই উৎসবে শিক্ষার্থীরা বাড়ী থেকে বিভিন্ন ফল সংগ্রহ করে দোকান সাজিয়ে রাখে। এতে তাদের ভেতরে এক ধরনের আনন্দ অনুভত হয়। এবছর ৬ষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা ৩৮ রকমারি দেশীয় ফল তাদের স্টলে সাজিয়ে রাখে। তাই বিচারকমণ্ডলী তাদের প্রথম স্থান হিসাবে ঘোষণা করেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com