রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৯:৫৪ পূর্বাহ্ন

রেজা সুজাত ভাই ভাই, আর কোন বিভেদ নাই

উত্তম কুমার পাল হিমেল, নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ) থেকে : হবিগঞ্জ-১ (নবীগঞ্জ-বাহুবল) আসনে অবশেষে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের এক যৌথসভায় সকল কোন্দলের অবসান হয়েছে। ড. রেজা কিবরিয়া ও বিএনপির সাবেক সংসদ শেখ সুজাত হাতে হাত রেখে ‘খালেদা জিয়া’র মুক্তির জন্য এক সাথে কাজ করার অঙ্গিকার করেছেন।

নবীগঞ্জ-বাহুবল দুটি উপজেলার কয়েক হাজার নেতাকর্মীর পরামর্শ সভায় ড. রেজা ও শেখ সুজাত হাতে ধানের শীষ নিয়ে মিছিল তোলেন ‘রেজা-সুজাত ভাই ভাই ধানের শীষে ভোট চাই, রেজা-সুজাত ভাই ভাই আমাদের কোন বিভেদ নাই’ এ সময় নেতাকর্মীরা স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত করে তুলেন নবীগঞ্জ শহর।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র শহরের গোল্ডেন প্লাজাস্থ কার্যালয়ের সামনে নবীগঞ্জ ও বাহুবল উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের যৌথ পরামর্শ সভা অনুষ্টিত হয়।

নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি সাবেক এমপি শেখ সুজাত মিয়া’র সভাপতিত্বে ও পৌর বিএনপি’র নেতা মুশফিকুজ্জামান চৌধুরী নোমান ও ছাত্রদল নেতা অলিউর রহমান এর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্টিত সভায় বক্তব্য রাখেন নবীগঞ্জ উপজেলার বিএনপি’র সাবেক সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই, নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান শেফু, নবীগঞ্জ পৌর বিএনপি’র সভাপতি মেয়র ছাবির আহমদ চৌধুরী, বাহুবল উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আকাদ্দছ মিয়া বাবুল, বাহুবল উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মিজানুর রহমান, নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক শিহাব আহমদ চৌধুরী, পৌর বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক যুবরাজ গোপ প্রমুখ।

সভা চলাকালে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মনোনীত প্রার্থী ড. রেজা কিবরিয়া এসে উপস্থিত হলে হাজারো নেতাকর্মী তাঁকে স্বাগত জানান।

এসময় নেতাকর্মীদের উদ্যোশ্যে ড. রেজা কিবরিয়া বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তির জন্য এই নির্বাচন। আমি এ নির্বাচনে জয়ী হতে সাবেক সাংসদ শেখ সুজাতের সহযোগিতা চাচ্ছি। আমি জানি শেখ সুজাত একজন জনপ্রিয় নেতা, এই কয়েকদিনে আমি বুঝতে পেরেছি তাঁকে ছাড়া এই নির্বাচনে জয়ী হওয়া সম্ভব নয়। তাই দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি ও তারেক জিয়াকে দেশে ফিরিয়ে আনতে গণতন্ত্র রক্ষায় দেশের মানুষকে শান্তি ফিরিয়ে দিতে ধানের শীষে ভোট দিবেন। আমার নির্বাচনী কাজে শেখ সুজাত মিয়া নেতৃত্ব দিবেন। আমি অত্র এলাকার সবাইকে চিনি না, শেখ সুজাত মিয়া সবাইকে চিনেন এবং জানেন তাই তাঁর নির্দেশেই আমার নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা হবে। ঐক্যফ্রন্টের বিরুদ্ধে অনেক হুমকি, ষড়যন্ত্র চলছে সে সব মোকাবিলা করে ৩০ তারিখে ভোট দিতে হবে। রাতে পুলিশ ১৬ বছরের কিশোর ও ৭০ বছরের বৃদ্ধকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে, নেতাকর্মীদের ঘরে ঘুমাতে দিচ্ছে না।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর আমাদের সবাইকে হুমকি ধামকি মোকাবিলা করে ভোট কেন্দ্র পাহারা দিতে হবে। এরপরই বিএনপি’র দু’বারের সাবেক সাংসদ শেখ সুজাত মিয়া বলেন ‘রেজা-সুজাত ভাই ভাই ধানের শীষে ভোট চাই, রেজা-সুজাত ভাই ভাই আমাদের কোন বিভেদ নাই’ স্লোগান দিয়ে বক্তব্য শুরু করেন।

তিনি বলেন আমাদের মধ্যে আজ থেকে আর কোন বিরুধ নেই। দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আমরা দুই ভাই মিলেমিশে কাজ করব। আমি মনে করি অত্র এলাকার আগামী দিনের সাংসদ ড. রেজা কিবরিয়া, আর তাঁকে নিয়েই নবীগঞ্জ-বাহুবলের উন্নয়ন কাজ পরিচালনা করব। মামলা, হামলা, ভয়ভীতি হুমকি যাই আসুক আজ থেকে এক পা পিছু হব না। ধানের শীষকে ৩০ ডিসেম্বর বিজয়ী করে ঘরে ফিরব।

উক্ত পরামর্শ সভা শেষে ড. রেজা কিবরিয়া ও সাবেক সাংসদ শেখ সুজাতের নেতৃত্বে এক গণমিছিল নবীগঞ্জ শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। উক্ত পরামর্শ সভার আগে ড. রেজা কিবরিয়া বাহুবল উপজেলার রইছগঞ্জ বাজার ও বাহুবল সদরে গণসংযোগ করেন।

এরপর তিনি নবীগঞ্জ পৌর বিএনপি’র সাবেক সভাপতি ও নবীগঞ্জ পৌরসভার জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব বিএনপি নেতা মরহুম এডভোকেট আব্দুস শহীদ গোলাপ এর বাসভবনে গিয়ে কিছু সময় কাটান ও পরে তাঁর কবর জিয়ারত করেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com