রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৪:৪৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাহুবলে ৫ আওয়ামীলীগ নেতাকে হারিয়ে আলেম চেয়ারম্যান নির্বাচিত শান্তিপূর্ণ ও বিশ্বাস যোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর- এসপি আক্তার হোসেন জনগণ যাকে ভালবাসবে, দায়িত্ব দিতে চাইবে, তাকেই দেবে- জেলা প্রশাসক বাহুবলে বিয়ের আনন্দ-ফুর্তি চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবতীর মুত্যু বাহুবল উপজেলা নির্বাচন : ২০ প্রার্থীর মাঝে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ বাহুবল উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত বাহুবলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বাহুবল হাসপাতালের নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি প্রথম সভা বাহুবলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বাছাইয়ে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র অবৈধ বাহুবল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

নাশকতার শঙ্কায় আওয়ামী লীগ

তরফ নিউজ ডেস্ক: ভোটের দিন বিএনপি-জামায়াত জোট সারাদেশে নাশকতা চালাতে পারে বলে শেষ সময়েও আশঙ্কা প্রকাশ করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগের দিন শনিবার সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে এই আশঙ্কা প্রকাশ করেন আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ টি ইমাম।

তিনি বলেন, “আমাদের কাছে এমন খবর আছে, বিএনপি-জামাত জোট নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভয়াবহ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হতে পারে। আগামীকাল সারা দেশে নৈরাজ্য, সন্ত্রাস ও সহিংসতা সৃষ্টি করতে পারে। এমনকি ভুয়া ব্যলট পেপার ও ভুয়া বুথ তৈরি করে ভিডিও বানিয়ে গুজব সৃষ্টি করতে পারে।”

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এইচ টি ইমাম প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টার দায়িত্বেও রয়েছেন।

সোশাল মিডিয়ায় গুজব ঠেকাতে ‘সরকারের নির্দেশনায়’ মোবাইল ফোনে থ্রি জি ও ফোর জি ইন্টারনেট ইতোমধ্যে বন্ধ করে দিয়েছে বিটিআরসি।

নির্বাচনে সবার জন্য নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সর্বস্তরের সদস্যদের নির্দেশও দিয়েছেন সিইসি কে এম নূরুল হুদা।

আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তায় সেনাবাহিনীও নেমেছে।

গত কয়েকদিনে বিভিন্ন স্থানে ঘুরে দেখার অভিজ্ঞতা তুলে ধরে সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেছেন, “বিগত ৪৭ বছরে এমন পিসফুল পরিবেশ দেখিনি। ঢাকার বাইরে সবাই আশ্বস্ত যে এবার সুন্দর পরিবেশে নির্বাচন হবে।”

এইচ টি ইমাম বলছেন, সারাদেশে নৌকার পক্ষে ‘অভূতপূর্ব গণজোয়ার’ দেখে ভোট বানচালের চেষ্টা চালাতে পারে বিএনপি জোট।

তিনি বলেন, “আমরা ইতোমধ্যে দেখেছি নোয়াখালীতে নির্বাচনকে বানচাল করার জন্য কিছু সরঞ্জাম পুলিশ জব্ধ করেছে। সেখানে স্থানীয় বিএনপি প্রার্থী মওদুদ আহমদ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য আগাম অভিযোগপত্র প্রিন্ট করে রেখেছেন।”

বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হচ্ছে, আওয়ামী লীগই প্রশাসনকে ব্যবহার করে ভোট কারচুপির পরিকল্পনা করে রেখেছে। ব্যালট বাক্সও আগে থেকে ভরে রাখার ষড়যন্ত্র হচ্ছে।

এ বিষয়ে ইমাম বলেন, “এটা হাস্যকর, কেননা ব্যালট বাক্সগুলো নির্বাচন কমিশন থেকে সশস্ত্রবাহিনীর প্রহরায় তারা নিয়ে যাচ্ছেন। যেখান থেকে নেওয়া হচ্ছে, সেখানে আমাদের যাতায়াত তো দূরের কথা, প্রবেশাধিকারই নেই।

“কারা, কোথায় পাঠাচ্ছেন, কীভাবে পাঠাচ্ছেন, সেটা আমরা টেলিভিশনে দেখেছি। তাছাড়া স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স তো পোলিং এজেন্টদের আগেই (ভোটগ্রহণ শুরুর আগে) দেখানো হবে।”

বঙ্গবন্ধু এভিউনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা মসিউর রহমান, ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, সাবেক মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান, আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সবুর, উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া ও কেন্দ্রীয় সদস্য মারুফা আক্তার পপি উপস্থিত ছিলেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com