মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০২:৩৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কলম্বিয়াকে হারিয়ে দ্বিতীয়বার কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা বাহুবলে স্মার্ট এনআইডি কার্ড বিতরণের জন্য জনবল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাহুবলে দুই মাস ধরে নিখোঁজ রবিউলের সন্ধান চায় পরিবার যে কারণে ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকি দেয় সোহাগ ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকিদাতা গ্রেপ্তার পিএসসির প্রশ্নফাঁস: দায় স্বীকার করে ৭ জনের জবানবন্দি, ১০ জন কারাগারে দেশের সম্পদ বেচে মুজিবের মেয়ে ক্ষমতায় আসে না: প্রধানমন্ত্রী ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকি, প্রতিবাদে বাহুবলে মানববন্ধন ৫০ লাখ মানুষ অনলাইন জুয়ায় যুক্ত, আসছে সম্মিলিত অভিযান বাহুবলে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দিলো “ইউসেব”

লাকসামে প্রেমিক যুগলকে আটক করায় খুন হলো এক যুবক

ঘাতক মিজান

আরিফুর রহমান স্বপন, লাকসাম, (কুমিল্লা) : কুমিল্লার লাকসামে প্রেমিক-প্রেমিকাকে আটক করায় এক যুবক খুন হয়েছে। আহত হয়েছে অপর এক যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে আজ সোমবার উপজেলার উত্তরদা ইউপি’র পোলইয়া নামক স্থানে।

জানা যায়, কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার খুরুয়া গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে এক সন্তানের জনক মিজানুর রহমান পাশ্ববর্তী হাতিমারা গ্রামে বিয়ে করেন। তার স্ত্রী নুরজাহান বেগমের জেঠাতো বোনের মেয়ে চুমকির সাথে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল মিজানের। চুমকির বাড়ি সিলেটের মৌলভী বাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায়। সে হাতিমারা গ্রামে তার নানার বাড়িতে থেকে পড়ালেখা করতো। মিজান চুমকীর সম্পর্কে খালু হয়। কিছুদিন আগে মিজান তার স্ত্রী সন্তানকে রেখে প্রেমের টানে প্রেমিকা চুমকীকে নিয়ে সিলেটে পালিয়ে যায়। কয়েকদিন সিলেট থাকার পর আজ সোমবার সিলেট থেকে ট্রেনে এসে লাকসাম রেলওয়ে জংশনে অবস্থান করে। এইদিকে সুমন ও একই বাড়ির ইমরানসহ আরো কয়েকজন কাজের উদ্দেশ্যে সকালে লাকসাম জংশন আসলে ওই প্রেমিক মিজান ও প্রেমিকা চুমকিকে দেখতে পায়। একপর্যায়ে তারা একটা সিএনজি অটোরিক্সা করে প্রেমিক যুগলকে হাতিমারা গ্রামের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়ার সময় পোলইয়া নামক স্থানে মিজান ছুরি দিয়ে সুমন ও এমরানকে আঘাত করে। তাদের আতœচিৎকারে এলাকার লোকজন এসে প্রেমিক যুগলকে আটক করে এবং আহত সুমন ও ইমরানকে লাকসামের একটি হাসপাতালে ভর্তি করে। তাদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক আহতদেরকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করলে চিকিৎসক সুমনকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত সুমন মনোহরগঞ্জ উপজেলার উওর হাওলা ইউনিয়নের হাতিমারা গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে। নিহতের বাড়িতে শোকের মাতম বইছে।

লাকসাম থানার ওসি তদন্ত নজরুল ইসলাম জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্মে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি ছুরি উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার সাথে জড়িত মিজান ও চুমকীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই ঘটনায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com