রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১০:৫৪ অপরাহ্ন

শুরুতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের নেই ৫ উইকেট!

ছবি: ইন্টারনেট

ক্রীড়া ডেস্ক : ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় প্রথম ইনিংসে ১৫৪ ওভার ব্যাটিং করে ৫০৭ রান করে বাংলাদেশ দল। টাইগাররা খেলা শেষ করার পর সবে মাত্র ব্যাটিং করতে নেমেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসম্যানরা। ব্যাটিংয়ে নেমে রীতিমত হাসফাঁস করছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শেষ সেশনে সাকিব-মিরাজদের ঘূর্ণির জবাব যেন খুঁজেই পাচ্ছেন না সফরকারীরা। ২৯ রানের মধ্যে তারা হারিয়েছেন পাঁচ উইকেট। পাঁচ ব্যাটসম্যানই হয়েছেন বোল্ড। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত উইন্ডিজদের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৪২ রান।

ইনিংসের প্রথম ওভারেই বল হাতে তুলে নেন টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ওই ওভারেই উইন্ডিজ অধিনায়ক ক্রেইগ ব্রেথওয়েটকে শূন্য রানে ফেরান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। এরপর ষষ্ঠ ওভারে এসে কাইরন পাওয়েলকে ৪ রানে সাজঘরের পথ দেখান মেহেদী হাসান মিরাজ।

ব্যক্তিগত ৭ রানে সাকিবের দ্বিতীয় শিকার সুনিল এমব্রিস। আর শূন্য রানেই দলের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে বোল্ড হন রস্টন চেজ। তার উইকেটটিও নেন মিরাজ। এরপর তার বলে বোল্ড শাই হোপ।

এর আগে ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় প্রথম ইনিংসে ১৫৪ ওভার ব্যাটিং করে ৫০৭ রান করে বাংলাদেশ দল। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ একাই করেন ১৩৬ রান। ২৪২ বলের ইনিংসটিতে তিনি হাঁকান ১০টি বাউন্ডারি।

ষষ্ঠ উইকেটে মাহমুদউল্লাহ আর সাকিবের ১১১ রানের বড় জুটিটিই মূলত বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দিয়েছিল বাংলাদেশের। সাকিব সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়েই সাজঘরে ফিরেছেন। ১৩৯ বলে ৬ বাউন্ডারিতে ৮০ রান করে কেমার রোচের শিকার হন টাইগার অধিনায়ক।

এরপর লিটন দাসকে নিয়ে ৯২ রানের আরেকটি জুটি মাহমুদউল্লাহর। লিটন হাফসেঞ্চুরি পূরণ করার পর অবশ্য বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ব্রেথওয়েটকে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে ৫৪ রানে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসেন তিনি।

মেহেদী হাসান মিরাজ করেন ১৮ রান। নবম উইকেটে তাইজুল-মাহমুদউল্লাহর আবারও ৫৬ রানের জুটি। ২৬ রান করে তাইজুল ব্রেথওয়েটের শিকার হন। শেষ উইকেটে নাঈম হাসানকে নিয়ে ৩৬ রানের আরেকটি জুটিতে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫০০ পার করে দেন মাহমুদউল্লাহ। নাঈম অপরাজিত ছিলেন ১২ রানে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com