রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৮:২৮ পূর্বাহ্ন

মাধবপুরে টিপড়াছড়া খাল খনন করায় রক্ষা পাবে পাকা ফসল

নিজস্ব প্রতিবেদক : হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুরের দুঃখ টিপড়াছড়া খাল খননের ফলে শাহজাহানপুর ইউনিয়নের কয়েক হাজার বিঘা জমির পাকা ফসল রক্ষা পাবে জলাবদ্ধতা থেকে। অভাব হবে না সেচের পানির। বাড়বে মাছের আবাদ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাধবপুর উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়েনর জালোয়াবাদ ও নোয়াগাঁওসহ ৫/৬টি গ্রামের তিনটি ফসলের মাঠ সামান্য বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। বৃষ্টির ফলে প্রতিবছরই পাকা ফসল পানির নিচে চলে যেত। এ জলাবদ্ধতায় এলাকাবাসীর দুর্ভোগের শেষ ছিল না। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী বিভিন্ন সময় আন্দোলন সংগ্রাম করেন। পরে হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড এ সমস্যার সমাধানের জন্য ওই এলাকার টপড়াছড়া খাল খননের উদ্যোগ নেয়। পরে ১ কোটি ৪৩ লাখ টাকা ব্যয়ে খালের ৫ কিলোমিটার এলাকা খনন করা হয়।

নোয়াগাঁও গ্রামের কৃষক আব্দুল মন্নান বলেন, প্রতি বছর বৃষ্টি আসলেই তলিয়ে যায় তাদের ফসল। টিপড়াছড়া খালটি খনন হওয়ায় এখন তাদের দুঃখ লাগব হবে।

শাহজাহানপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তৌফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, গত তিন মৌসুম বৃষ্টিতে ওই এলাকায় কয়েক হাজার বিঘা জমির পাকা ফসল তলিয়ে গেছে। টিপড়াছড়া খালটি ভরাট হওয়ায় পানি নিস্কাষনের ব্যবস্থা না থাকায় সেখানে জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। খালটি খনন করায় এখন আশা করা যায় জলাবদ্ধতা দূর হবে এবং কৃষকের ফসল রক্ষা পাবে।

হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী এম এল সৈকত জানান, টিপড়াছড়া খালটি ভারতীয় সীমান্ত এলাকা থেকে বহরা পর্যন্ত প্রবাহিত হয়েছে। খালটি ভরাট থাকায় এলাকাবাসী দুর্ভোগে পতিত হয়। এখন এ খাল খনন করে এখানকার পানি প্রবাহিত হয়ে বোয়ালিছড়া হয়ে বি-বাড়ীয়ার কাস্তি নদীতে নেমে যাবে।ফলে এখানে কোন জলাবদ্ধতা থাকবে না। পাশাপাশি এ খালের পানি দিয়ে চলবে সেচের কাজ। এখানে মাছের উৎপাদনও বৃদ্ধি পাবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com