বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৪:৩১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাহুবলে ৫ আওয়ামীলীগ নেতাকে হারিয়ে আলেম চেয়ারম্যান নির্বাচিত শান্তিপূর্ণ ও বিশ্বাস যোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে পুলিশ বদ্ধপরিকর- এসপি আক্তার হোসেন জনগণ যাকে ভালবাসবে, দায়িত্ব দিতে চাইবে, তাকেই দেবে- জেলা প্রশাসক বাহুবলে বিয়ের আনন্দ-ফুর্তি চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবতীর মুত্যু বাহুবল উপজেলা নির্বাচন : ২০ প্রার্থীর মাঝে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ বাহুবল উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত বাহুবলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বাহুবল হাসপাতালের নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি প্রথম সভা বাহুবলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বাছাইয়ে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র অবৈধ বাহুবল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

মানবিক উপস্থাপনায় নান্দনিক ‘ইত্যাদি’

নিজস্ব প্রতিবেদক : মজার তথ্যও তুলে ধরেছে এবারের ইত্যাদি। দুধ-কলা দিয়ে সাপ পোষা—এমন কথাটি প্রসঙ্গে নির্মাতা হানিফ সংকেত পটুয়াখালীর সাপ ব্যবসায়ী আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাসকে প্রশ্ন করলে তিনি জানান, দুধ-কলা খেয়ে সাপ হজম করতে পারে না। আবার সিনেমায় বীণের সুরের তালে তালে সাপের নৃত্য পরিবেশন প্রসঙ্গে রাজ্জাক জানান, সাপ বধির হওয়ার কারণে বীণের সুর শোনারও কথা নয়। সাপ ভীতু প্রাণী এবং চোখের সামনে কোনোকিছু নড়াচড়া করলে ভয় পেয়ে সাপের মাথাও সেদিকে নড়াচড়া করতে থাকে।

বরাবরের মতোই সমাজের ছোট-বড় অসংগতি তুলে ধরে মূল্যবোধ ও মানবিক আবেদনে পরিবেশিত হলো কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে ধারণ করা এবারের ইত্যাদি। গত ২৯ মার্চ বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে একযোগে প্রচারিত এই ইত্যাদিতে মানবিকতা, সংস্কৃতি, দেশাত্মবোধসহ সমসাময়িক নানা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে এসেছে নান্দনিকভাবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের গুরুত্ব তুলে ধরার পাশাপাশি এর অপব্যবহারের নেতিবাচক দিকটিও তুলে ধরা হয় একটি নাটিকায়। অপব্যবহারে ফেসবুক যে অসুখ হতে পারে, মাদকের মতো ফেসবুকের নেশাতেও যে কেউ কেউ অস্বাভাবিক আচরণ করতে পারে, ডাক্তারের কাছে এক ফেসবুক রোগীর আগমনে এ বিষয়টি উঠে এসেছে। তাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেলেমেয়েরা কী করছে, কী শিখছে সেদিকেও লক্ষ্য রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করলো ইত্যাদি।

শিক্ষা-দীক্ষা যে ভিক্ষায় অর্জিত হয় না এবং যেকোনো বিদ্যার ক্ষেত্রেই যে প্রকৃত শিক্ষা গ্রহণের গুরুত্ব বেশি এ বিষয়টিও অত্যন্ত চমত্কারভাবে তুলে ধরা হয়েছে।

গানের শিক্ষকের জন্য বিজ্ঞাপন দেখে শিক্ষক প্রত্যাশীর বাসায় এক সংস্কৃতি সচেতন মানুষের আগমনের দৃশ্যায়ণে আমাদের সঙ্গীত শিক্ষার গৌরবময় অতীত ফুটে উঠেছে। অতীতে গান শেখার জন্য বাড়িতে শিক্ষক রাখা, মহল্লায় মহল্লায় সারেগামা’র সুর ভেসে আসা এ সবের পাশাপাশি বর্তমানে অনেকের রাতারাতি শিল্পী হয়ে ওঠার দিকটি বিদ্রুপাত্মকভাবে তুলে ধরা হয়। গান না শেখা, হারমোনিয়াম বাজাতে না পারা, নিয়মিত চর্চা না করাসহ নানা নেতিবাচক দিক তুলে ধরে তাদের উপাধি দেওয়া হয় ইউটিউবের ভিউ শিল্পী ও ভাইরাল শিল্পী। আবার, ভাইরাল শব্দটির ব্যবহার নিয়েও এবারের ইত্যাদিতে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। কারণ ভাইরাল শব্দটি এসেছে ভাইরাস থেকে। এর অর্থ দাঁড়ায় দূষিত বা বিষাক্ত কিছু, যা সংক্রামিত হয়। কাজেই ইতিবাচক খবরের ব্যাপক প্রচারের ক্ষেত্রে ভাইরাল শব্দটির ব্যবহার নিয়েও আমাদের ভাবনার দরজায় কড়া নাড়লো ইত্যাদি। বাংলা শব্দ ইংরেজি বর্ণমালায় লেখার সাম্প্রতিক অপসংস্কৃতির বিষয়েও বিদ্রুপাত্মক মন্তব্য উঠে এসেছে চিঠিপত্র বিভাগে। মান ও হুঁশ বাদ দিয়ে শুধু নিজের লাভের আশায় অন্যকে ঠকানোর অসুস্থ মানসিকতা লালন করার দিকেও বিদ্রুপের তীর ছুঁড়ে দিলো ইত্যাদি। বিশ্বাসে মেলায় বস্তু, তর্কে বহুদূর-এ কথার দিনও যে বহুদূরে চলে গেছে এবং বিশ্বাসেরই যে নিঃশ্বাস নেই, ভেজাল পণ্যে বাজার সয়লাবের বিষয়টি তুলে ধরতে গিয়ে এমন অমোঘ সত্যই তুলে ধরা হয়েছে। মজার তথ্যও তুলে ধরেছে এবারের ইত্যাদি। দুধ-কলা দিয়ে সাপ পোষা—এমন কথা প্রসঙ্গে নির্মাতা হানিফ সংকেত পটুয়াখালীর সাপ ব্যবসায়ী আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাসকে প্রশ্ন করলে তিনি জানান, দুধ-কলা খেয়ে সাপ হজম করতে পারে না। আবার সিনেমায় বীণের সুরের তালে তালে সাপের নৃত্য পরিবেশন প্রসঙ্গে রাজ্জাক জানান, সাপ বধির হওয়ার কারণে বীণের সুর শোনারও কথা নয়। সাপ ভীতু প্রাণী এবং চোখের সামনে কোনোকিছু নড়াচড়া করলে ভয় পেয়ে সাপের মাথাও সেদিকে নড়াচড়া করতে থাকে। সাপ নিয়ে চমত্কার এ প্রতিবেদন ছাড়াও পটুয়াখালীর মৃিশল্প, শতাধিক বছরের পুরোনো নৌকা, সোনার চর ও চর বিজয় নিয়ে প্রতিবেদন এবং দক্ষিণ আফ্রিকার টেবিল মাউন্টেইন নিয়ে করা প্রতিবেদনও ছিল অত্যন্ত তথ্যবহুল ও উপভোগ্য। সিরাজগঞ্জের বিশাল এলাকার সর্ষে ক্ষেতে অর্থাত্ হলুদ সাগরে মধু চাষ ও যশোরের একটি মাদ্রাসা ভবনে অনেকগুলো মৌচাকের দৃশ্যও অনেক অজানাকে জানিয়ে দেয়। ক্ষুধা ও অভাবের তাড়নায় পালিয়ে যাওয়া এক সময়ের এতিম মোতালেব শিকড়ের টানে বিদেশ থেকে দেশে আসেন মানুষের জন্য কাজ করতে, গড়ে তোলেন এতিমখানা, হাসপাতাল। এমন দৃশ্য দেখে কোটি দর্শকের মন মানবিকবোধে উদ্বুদ্ধ হয়। নিজের জীবন বিপণ্ন করে হলেও অন্যের জীবন রক্ষা করতে যাওয়া কুয়াকাটার মান্নান মাঝি আমাদের বিবেকের দরজায় প্রবল কড়া নেড়ে মানবিক বার্তা দেন—মানুষ মানুষের জন্য, এটা শুধু কথায় নয়, কাজেও যেন আমরা প্রমাণ দিই। অন্যের বিপদে যেন আমরা এগিয়ে আসি, মানুষের জন্য, মানবতার জন্য। তাই সব মিলিয়ে বলা যায়, বরাবরের মতো এবারের ইত্যাদিও অনবদ্য, তথ্যবহুল ও মানবিক ছিল।

পরিশেষে বলা যায়, হানিফ সংকেত শুধু সবার প্রিয় উপস্থাপকই নন, তিনি একজন মানবিক উপস্থাপকও। ধন্যবাদ ইত্যাদি। ধন্যবাদ হানিফ সংকেত।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

ওয়েবসাইটের কোন কনটেন্ট অনুমতি ব্যতিত কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design & Developed BY ThemesBazar.Com